জাফর ইকবালের সায়েন্স ফিকশন সমূহ।

জাফর ইকবাল তার জীবনে অনেক ধরনের বই লিখেছেন। তার বেশির ভাগ বই লিখেছেন শিশু কিশোরদের জন্য। তার লেখা কিশোর উপন্যাস, সায়েন্স ফিকশন, গোয়েন্দা গল্প ও ভূতের গল্প বেশ জনপ্রিয়। তার লেখার সংখ্যা অনেক। তাই শুধু তার সায়েন্স ফিকশন সমগ্রই পাঁচটি! আজকে আমি এই ব্লগে জাফর ইকবালের কয়েকটি নতুন এবং জনপ্রিয় সায়েন্স ফিকশনের নাম ও বই গুলোর রিভিউ দেওয়ার চেষ্টা করব। প্রতি বছরের বই মেলাতে জাফর ইকবালের অন্যান্য বইয়ের পাশাপাশি  অনেক সায়েন্স ফিকশন বইও বের হয়। তাই সব গুলো নতুন বইয়ের নাম বলা সম্ভব না হলেও কয়েকটি বইয়ের রিভিউ দেব।

গ্লিনাঃ

গ্লিনা বইটির প্রথম প্রকাশ ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারির বইমেলায়। ১২৮ পেজের এই বইটির মূল্য ২৪০ টাকা। গ্লিনা এমন একটি সায়েন্স ফিকশন যেখানে ভবিষ্যৎ এর রোবট বিপর্যয় এর ধারণা দেওয়া হয়েছে। এই সায়েন্স ফিকশন বইটির মেইন বা প্রধান চরিত্র হলো গ্লিনা নামক একটি রোবট যাকে কেন্দ্র করে সায়েন্স ফিকশনটি লেখা হয়েছে। রোবট বিপর্যয় এর হাত থেকে মানব জাতিকে রক্ষা করার একটি পরিকল্পনা এবং তা বাস্তবায়ন করার মাধ্যমে মানব জাতি রোবট বিপর্যয় এর হাত থেকে মুক্তির এক দারুণ গল্প এটি।

জাফর ইকবালের সায়েন্স ফিকশন সমূহ।


রুহান রুহানঃ

জাফর ইকবালের অনেক সায়েন্স ফিকশনের মধ্যে সেরা একটি হলো রুহান রুহান। রুহান রুহান গল্পটির মধ্যে মানুষ জাতি চির তারুণ্য লাভ করলে কি হবে এর ভবিষ্যৎ নিয়ে লেখা হয়েছে। তখন কিছু রাজনৈতিক দল ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে পুরো পৃথিবী শাসন করত এবং তখন অনেক মানুষ বেচে থাকার আশা হারিয়ে ফেলে। এছাড়া জীবনের কোনো মূল্য ছিল না তখন। এই রকম একটি দারুণ কাহিনী নিয়ে লেখা বইটি। এই বইটির মেইন ক্যারেকটার বা চরিত্র হলো রুহান।


আরও পড়ুন-

নিয়ানঃ

অতীতে মানবজাতির দুইটি জাতি ছিল। একটি ছিল নিয়ান্ডার্থল এবং অন্যটি ছিল হোমোসেপিয়েন্স। আর এই হোমোসেপিয়েন্স হলো আমরা। পূর্বে আমাদের হোমোসেপিয়েন্স জাতি নিয়ান্ডার্থল জাতিকে হত্যা করে এবং বিলুপ্তি ঘটে। এই নিয়েই নেন গল্পটি লেখা। এই গল্পটির মেন ক্যারেক্টার হল মনিকা এবং নিয়ম। মনিকা খুব বাজে মেয়ে একদিন সে পাহাড়ে গিয়ে একটি শিশু নিয়ান্ডার্থলকে আবিস্কার করে এবং বিজ্ঞানীদের প্রতিষ্ঠায় তাকে জীবিত করা হয়।  কিন্তু পৃথিবীর কিছু লোক আছে যারা নিয়েন্ডারথ্যাল কে মেনে নিতে পারেনি তাই তাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করে। পরেমনে কানিয়ান শিশুটিকে নিয়ে পালিয়ে যায় এবং তাকে অনেক কিছু শেখানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু একসময় নিয়ান্ডার্থল শিশুটি জাতির কাউকে না পেয়ে বেঁচে থাকার ইচ্ছা হারিয়ে ফেলে এবং মৃত্যুবরণ করেন। এরকম একটি দারুন কাহিনী লেখা বইটি। 

আপনারা যে কোন বই চাইলে রকমারি থেকে কিনতে পারেন অথবা বইমেলা থেকেও  কিনতে পারে। ব্লগ টি ভাল লাগলে অবশ্যই কমেন্ট করবেন এবং শেয়ার করবেন ধন্যবাদ। 

*

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post

Health

Blogger Templates